Dr. Bashir Mahmud Ellias's Blog

Know Thyself

Eye

চশমা  কোন  প্রকৃত  চিকিৎসা  নয়

 Eye  glass  is  not  a  real  treatment

শিশুদের  জন্য  তৈরী  করা  শিক্ষামুলক  কার্টুন  সিরিজ  সিসিমপুরের  একটি  পর্বে  দেখানো  হয়েছে  যে,  এক  রাজকুমারী  কাছের  জিনিস  ভালো  দেখতে  পেতো  না।  ফলে  তার  চলাফেরা-কাজ-কর্মে  ভীষণ  অসুবিধা  হতো।  এজন্য  রাজপরিবারের  সবার  মনে  দুঃখের  শেষ  ছিল  না।  অবশেষে  একজন  চোখের  ডাক্তার  তাকে  সুন্দর  ফ্রেমের  একটি  চশমার  ব্যবস্থা  করে  দিলেন।  ফলস্রুতিতে  তার  সমস্যাও  চলে  গেলো  এবং  রাজপরিবারের  সকলের  আনন্দের  আর  সীমা  রইলো  না।  এভাবে  শিশুদেরকেও  ভুল  শিক্ষা  দেওয়া  হচ্ছে  যে,  চোখের  সমস্যায়  সর্বোত্তম  চিকিৎসা  হলো  চোখের  ডাক্তারের  কাছে  গিয়ে  চশমা  নেওয়া।  আমরা  বয়ষ্করাও  জানি  যে,  চোখের  সমস্যায়  চশমাই  একমাত্র  চিকিৎসা ;  ইহার  কোন  বিকল্প  নাই।  অথচ  আমরা  অনেকেই  জানি  না  যে,  দৃষ্টিশক্তির  সমস্যা  দুর  করতে  চশমা  ব্যবহার  করা  হলো  একটি  হাতুড়ে  চিকিৎসা,  বলা  যায়  একটি  কুচিকিৎসা।  কারণ  এতে  চোখের  মুল  সমস্যাটি  দুর  হয়  না  বরং  রয়েই  যায়  এবং  দিন  দিন  সেই  সমস্যাটি  আরো  খারাপের  দিকে  যেতে  থাকে।  চশমা  কোমপানীরা  আবার  হরদম  অপপ্রচার  চালায়  যে,  চশমা  নাকি  মানুষের  সৌন্দর্য  বৃদ্ধি  করে !  যদি  তাই  সত্যি  হতো,  তবে  হলিউড-বলিউড-ঢালিউডের  নায়ক-নায়িকারা  চব্বিশ  ঘণ্টাই  চোখে  একটা  করে  লেটেস্ট  মডেলের  চশমা  লাগিয়ে  রাখত।  হ্যাঁ,  সুন্দর  মডেলের  একটি  চশমা  ক্ষণিকের  জন্য  আপনার  সৌন্দর্য  যদি  বৃদ্ধিও  করে  থাকে,  তথাপি  একমাত্র  ভুক্তভোগীরাই  জানে  যে  সর্বক্ষণ  চশমা  পড়ে  থাকা  কতোটা  বিরক্তিকর  এবং  যনত্রণাদায়ক  একটি  বিষয়। 

            সে  যাক,  আজ  থেকে  একশ  বছর  পুর্বে  ব্রিটিশ  হোমিও  চিকিৎসা  বিজ্ঞানী  ডাঃ  জে. সি.  বার্নেটের (এম.ডি.)  কাছে  চিকিৎসার  জন্য  একটি  দশ  বছরের  শিশুকে  আনা  হয়েছিল,  যে  কিনা  কাছের  জিনিস  ভালো  মতো  দেখতে  পেতো  না।  তিনি  শিশুটির  বিস্তারিত  খোঁজ-খবর  নিয়ে  জানতে  পারলেন  যে,  তার  হজমের  সমস্যা  আছে।  বার্নেট  বুঝতে  পারলেন  যে,  হজমে  গন্ডগোল  থাকার  কারণে  শিশুটির  মধ্যে  অপুষ্টির  সমস্যা  আছে  এবং  তার  চোখও  অপুষ্টিতে  ভোগছে।  ঔষধ  দিয়ে  বার্নেট  শিশুটির  হজমের  সমস্যা  দুর  করে  দিলেন,  ফলে  শিশুটির  অপুষ্টিও  দুর  হয়ে  গেলো  এবং  চোখের  সমস্যাও  সেরে  গেলো।  তারপর  থেকে  সে  চশমা  ছাড়াই  পরিষ্কার  দেখতে  পেতো।  বলা  যায়,  বার্নেটই  প্রথম  হোমিওপ্যাথিতে  চক্ষু  রোগের  চিকিৎসায়  বৈপ্লবিক  সুচনা  করেন।  তিনি  যখন  ঘোষণা  করেন  যে,  শুধুমাত্র  ঔষধের  সাহায্যেই  চোখের  ছানি  নিরাময়  করা  সম্ভব ;  তখন  তৎকালীন  সমস্ত  এলোপ্যাথিক  এবং  হোমিওপ্যাথিক  ডাক্তাররাই  তার  দাবীকে  অযৌক্তিক  ও  অসম্ভব  ঘোষণা  করে  প্রত্যাখ্যান  করেন।  কিন্তু  বার্নেট  শত  শত  রোগী  সুস্থ  করে  হাতে-কলমে  প্রমাণ  করে  গেছেন  যে,  শারীরিক-মানসিক-বংশগত-জলবায়ুজনিত  প্রভৃতি  লক্ষণের  উপর  ভিত্তি  করে  প্রদত্ত  হোমিও  ঔষধের  সাহায্যে  কাছের  জিনিস  দেখতে  না  পাওয়া (myopia),  দুরের  জিনিস  দেখতে  না  পাওয়া (hypermetropia),  রাতকানা (nyctalopia),  চোখের  ছানিপড়া (cataract)  প্রভৃতি  রোগ  স্রেফ  ঔষধেই  নিরাময়  করা  যায়।  চশমা  বা  অপারেশনের  দরকার  পড়ে  না।  এজন্য  বার্নেট  চক্ষু  বিশেষজ্ঞদেরকে  সম্বোধন  করতেন  “চোখের  মিস্ত্রী”  হিসেবে।  পুচকে  একটি  শিশুকে  যখন  দেখি  সারাক্ষণ  হাই  পাওয়ারের  একটি  চশমা  পড়ে  আছে,  তখন  শিশুটির  কষ্ট  এবং  তার  পিতা-মাতার  অজ্ঞতা  আমার  মনকে  ব্যথিত  করে  তোলে।  চক্ষুরোগের  চিকিৎসায়  হোমিওপ্যাথিক  ঔষধের  শ্রেষ্টত্ব  সম্পর্কে  না  জানার  কারণে  মানুষ  অযথা  কতো  কষ্ট  স্বীকার  করতে  বাধ্য  হচ্ছে !  পরিশেষে  চক্ষু  বিশেষজ্ঞদের  প্রতি  আমাদের  দাবী  থাকবে,  তারা  যেন  চোখের  মুল  সমস্যা  দুর  করার  জন্য  হোমিও  ঔষধ  প্রেসক্রাইব  করেন  এবং  স্রেফ  চশমা  ধরিয়ে  দিয়ে  রোগী  বিদায়  করাতেই  তাদের  দ্বায়িত্ব  সীমাবদ্ধ  না  রাখেন। 

                                    ডাঃ  বশীর  মাহমুদ  ইলিয়াস

গ্রন্থকার,  ডিজাইন  স্পেশালিষ্ট,  ইসলাম  গবেষক,  হোমিও  কনসালটেন্ট

চেম্বার ‍ঃ  ১৩/ক – কে.  এম.  দাস  লেন (২য় তলা),

(হুমায়ুন  সাহেবের  রেলগেইটের  সামান্য  পশ্চিমে 

এবং  হায়দার  ফামের্সীর  উপরে)

টিকাটুলী,  ঢাকা।

                                                ফোন ঃ +৮৮০-০১৯১৬০৩৮৫২৭

E-mail : Bashirmahmudellias@hotmail.com

Website : http://bashirmahmudellias.blogspot.com

Website : https://bashirmahmudellias.wordpress.com

সাক্ষাতের  সময় ‍ঃ  সন্ধ্যা  ৬:০০  টা  হইতে  রাত  ৯:০০  টা

ক্যানসারের  চিকিৎসায়  ভয়ঙ্কর  বিপদ

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2009/10/cancer-and-its-perilous-treatment_31.html

মানসিক  রোগীদের  চরম  দুর্ভাগ্য

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2009/10/mental-patients-their-tradgedy.html

হৃদরোগের  সবচেয়ে  ভালো  চিকিৎসা  আছে  হোমিওপ্যাথিতে

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2010/02/cardiac-diseases-their-easy-cure.html

কিডনী  রোগের  প্রকৃত  কারণ  এবং  চিকিৎসা

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2009/10/kidney-diseases-their-real-cause-and.html

শিশুদের  টিকা  থেকে  সাবধান

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2008/10/beware-of-childhood-vaccine.html

হোমিওপ্যাথিক  ঔষধ  ছাড়া  ডায়াবেটিস  নিমূর্ল  হয়  না

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2009/09/diabetes-and-some-hard-talks.html

হেপাটাইটিস  একটি  ফালতু  রোগ

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2008/11/hepatitis-is-not-incurable-disease.html

প্যাথলজিক্যাল  টেস্ট  মারাত্মক  ক্ষতিকর

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2010/04/pathological-tests-are-seriously.html

ফ্রি  হোমিওপ্যাথিক  ই-কনসালটেশান

Free  homeopathic  e-consultation

http://bashirmahmudellias.blogspot.com/2009/11/free-homeopathic-e-consultation.html

Experiences in Ophthalmology

February 15, 2010 by Vijay H. Vaishnav  

Abstract/Excerpt

The author discusses his integrated approach to the treatment of ophthalmic conditions and illustrates with numerous successful cases of uveitis

This article originally appeared at www.drvaishnav.com

Over the past 20 years, I have tried an integrated approach to the treatment of ophthalmic cases with my friend Dr. Ranjit Maniar who is a Consulting Ophthalmic Surgeon in Mumbai. I have also had the opportunity to present papers to members of the Bombay Ophthalmic Society at their scientific sessions, viz. “The Role of Homoeopathy in Ophthalmology” at K.E. M. Hospital, Mumbai (March 1996) and “Homoeopathy in Uveitis” at P. D. Hinduja Hospital, Mumbai, (July 1998). Many cured cases were discussed with the distinguished audience in both these sessions.

The different types of ophthalmic conditions that I have successfully treated with homoeopathy are post-operative inflammations and ophthalmic infections, intra-ocular haemorrhages, post-traumatic conditions of the eyes, uveitis and of course common eye diseases like conjunctivitis and styes. Many cases of glaucoma, keratitis and corneal ulcers have also responded very well to homoeopathy.

Of the many ophthalmic cases referred to me for treatment, I have found that the most common condition that I am required to treat is uveitis. The patients with uveitis come with different presentations ranging from an acute state to a chronic state.

Uveitis is most commonly classified anatomically as anterior, intermediate, posterior, or diffuse. Anterior uveitis is localized primarily to the anterior segment of the eye and includes iritis and iridocyclitis. Intermediate uveitis, also called peripheral uveitis, is centered in the area immediately behind the iris and lens in the region of the ciliary body and pars plana, hence the alternate terms “cyclitis” and “pars planitis.” Posterior uveitis signifies any of a number of forms of retinitis, choroiditis, or optic neuritis. Diffuse uveitis implies inflammation involving all parts of the eye, including anterior, intermediate, and posterior structures.

Many of the patients referred with chronic anterior uveitis have already had previous attacks of the disease in the past and it is known for this relapsing state. In anterior uveitis, most attacks last from a few days to weeks with treatment, but relapses are common. In posterior uveitis, the inflammation may last from months to years and may cause permanent vision damage, even with (allopathic) treatment.

Causes of uveitis can include trauma, autoimmune disorders, infection, or exposure to toxins. However in many cases, the cause remains unknown. This wide range of causes also translates into the need for constitutional and miasmatic prescribing wherever necessary. The systemic symptoms as well as the complications underscore the need for an effective therapy that not only treats the disease but also prevents the recurrence and complications. Convenional allopathic therapy is not always able to achieve the expected results. This is where the homoeopathic medicine comes into the picture.

The patients referred for homoeopathic treatment are prescribed the indicated homoeopathic remedy after proper case taking, and the causation, mental symptoms, physical generals and the particular symptoms are all taken into consideration and given their due importance.

The patients who are on anti-inflammatory allopathic drugs before referral for homoeopathic treatment are weaned off the medication within a maximum period of two weeks. Those who are on steroids are slowly tapered off the medication under the guidance of the ophthalmic surgeon. In most cases the patients are only on homoeopathic medicines within a period of 3-5 weeks of commencement of treatment.

The patient is referred back to the ophthalmic surgeon at regular intervals ranging from weekly (in cases of acute uveitis) to monthly (chronic uveitis) or as per the wishes of the ophthalmic surgeon. He would note his findings and refer the patient back with his evaluation of the patient’s progress.

The patient’s subjective symptoms as well as the ophthalmic surgeon’s findings are considered by me to plan the next prescription.

Below are a few cases of uveitis that have been treated with homoeopathy:


Case 1

Name: Dr. H. J. C.                                                        Age: 25 years                                    Sex: Female                                                                 Date of visit: 28-9-2005

Chief complaints:

Pain and severe photophobia in the rt. eye since 12 days. There is blurring of vision. Heaviness and dull pain in the rt. eye. The eye symptoms are < bright light3, < sun, > closing the eyes.

She also has a headache for the past 3 years esp. over the temples < before menses, > sleep3

Pain in both the shoulders since 2 weeks along with a general body ache < lifting slight weight.

Life Situation and Mind:

Presently she is anxious about the eye complaints. Likes company and mixes easily with others.

Sensitive to insults, rudeness à brooding

> consolation

She has become irritable lately and snaps at everyone.

Patient as a Person:

Appetite: good

Desires: sweets3, spicy3, warm food, tea

Aversion: nil

Thirst: 10-12 glasses of cold water per day

Sweat: in summer

Stools: hard

Urine: normal

Hot patient

Gyn. & Obst. History:

FMP: 13 years                LMP: 20-7-2005         Pr. M P: 5-6 days/ 1 ½ months

Quantity: moderate        Colour: maroon         Clots: nil                               Odour: nil                       Stains: nil

BM: headache, weakness

Past History:

Typhoid and chicken pox in childhood.

Viral conjunctivitis and keratitis of both eyes- 2003

Acute Gastroenteritis- 2004

Family History:

Father- HT

Brother- Asthma, eczema, obsessive compulsive disorder

Examination findings:

Eyes (Externally)- congested

Rt. eye- Iritis

Diagnosis: Acute iridocyclitis

Treatment: Bryonia 200 tds x 2 weeks

Follow up:

12-10-2005: Asymptomatic. No pain, photophobia, redness of the eye.

Treatment- SL tds x 4 weeks.

10-11-2005: Asymptomatic. No visual complaints. (S/B Ophthalmic surgeon

on 2210-2005: Vision

http://hpathy.com/homeopathy-clinical-cases/experiences-in-ophthalmology/

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s

Follow

Get every new post delivered to your Inbox.

Join 378 other followers